নাসিরনগরে মামলা না নেওয়ায় ছেলের লাশ কবর দেয়নি বাবা, সড়ক অবরোধ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 15 February 2022, 249 বার পড়া হয়েছে,

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলায় নিজের শিশু সন্তান হত্যার বিচার চেয়ে গ্রামবাসীকে নিয়ে সড়ক অবরোধ করেছেন এক পিতা। মঙ্গলবার বিকেল ৪টা থেকে উপজেলার হরিপুর-হবিগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর আঞ্চলিক সড়ক অবরোধ করা হয়। এসময় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে নিহত শিশু রাসেল মিয়ার মরদেহ সামনে রাখা হয়। রাসেল মিয়া গতকাল সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে ট্রাক চাপায় নিহত হয়। রাসেল স্থানীয় হরিপুর সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী। সে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের টেকপাড়ার মো. আওয়াল মিয়ার ছেলে।

নিহত শিশু রাসেল মিয়ার পিতা আওয়াল মিয়া অভিযোগ করে বলেন, ‘গত ১৩ ফেব্রুয়ারি  এলাকার একটি ইটভাটার অংশীদার ও ট্রাকমালিক মো. কাপ্তান মিয়াকে আমি বাধা দেই। তারা ট্রাক দিয়ে মাটি আনতে গিয়ে এলাকার সড়ক নষ্ট করে ফেলছিল। এ নিয়ে প্রতিবাদ জানাই। বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে কাপ্তান মিয়া দলবল নিয়ে আমাকে হুমকি দেন। স্থানীয়দের উপস্থিতিতে তিনি তার কর্মীদের নির্দেশ দেন, ট্রাকের সামনে যা পড়বে সব মাটির সাথে পিষে দিতে। পরে সোমবার দুপুরে মাটির ট্রাকচাপায় আমার ছেলেকে ওরা মেরে ফেলেছে।

তিনি আরও বলেন, এই ঘটনায় সোমবার রাতে মামলা দায়ের করতে নাসিরনগর থানায় যাই। সেখানে আমার লিখা মামলা না নিয়ে খারাপ ব্যবহার করে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। ওসি বলছে, যে উকিল দিয়ে মামলা লেখাইছি তার মামলা নিবে না। থানায় মামলা লিখলে নিবেন। আমার ছেলে হত্যা বিচার চাই।

অভিযুক্ত মো. কাপ্তান অভিযোগ অস্বীকার করে  বলেন, ‘ট্রাক ড্রাইভার ছেলেটিকে মারছে। এতে আমার কোনো দোষ নাই। আমি কাউকে কোনো হুমকি দেয়নি।

এই বিষয়ে জানতে নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুল্লাহ সরকারের মুঠোফোনে কল দেওয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

সরাইল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি সমাধান হয়েছে।

সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জানা যায়, ঘটনাস্থলে গিয়ে নাসিরনগর থানা পুলিশ বিক্ষোভকারিদের এক ঘন্টার ভেতরে মামলা নেওয়া হবে বলে আশ্বস্থ করায় সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় সড়ক অবরোধ ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তবে নিহতের পিতা আওয়াল মিয়া জানিয়েছেন, মামলা এফ আইআর না হলে ছেলের মরদেহ কবর দেবেন না। পুনরায় সড়কে বসবেন।