ব্রাহ্মণবাড়িয়া উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহাদাৎ হোসেন শোভনের মতবিনিময় ও আলোচনা সভা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 23 March 2024, 44 বার পড়া হয়েছে,
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের সরকার পাড়া, বেপারী পাড়া ও মিয়া পাড়া এলাকার উদ্যোগে আসন্ন সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহাদাৎ হোসেন শোভনের পক্ষে মতবিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার (২৩ মার্চ) বিকাল ৩টার দিকে সরকার পাড়া দারুল উলুম মাদরাসার মাঠে এই মতবিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
বেপারি পাড়া জামে মসজিদের সভাপতি ও বিশিষ্ট সমাজসেবক হেবজুবুর রহমান শাকিলের সভাপতিত্বে ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি একে বাবুর সঞ্চালনায়  উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি সারোয়ার-ই-আলম, পিটিআই এর তত্ত্বাবধায়ক এড. কফিল উদ্দিন, সরকার পাড়া জামে মসজিদের সভাপতি হাজী কাদিরুজ্জামান সরকার, সাধারণ সম্পাদক জসিম সরকার ও আব্দুর রহমান প্রমূখ।
সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহাদাৎ হোসেন শোভনের বড়ভাই এড. সারোয়ার হোসেন শফিক পরিবারের পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন।
মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে শোভনকে নির্বাচিত করতে হবে। তিনি তরুণ প্রজন্মের কাছে একজন সাহসী মুজিব সেনা হিসেবে পরিচিত। অনেকই নির্বাচনে প্রার্থী হবেন কিন্তু যোগ্য, সৎ ও ত্যাগী এবং মেহনতি মানুষের কল্যাণে কাজ করে এমন একজনকে নির্বাচন করতে হবে। তাই আসন্ন সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে শাহাদাৎ হোসেন শোভনকে নির্বাচন করার আহ্বান জানান।
উক্ত মতবিনিময় ও আলোচনা সভা জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শহিদুল আলম জীবন, আসিফুল হাসান অন্তু, সদস্য আব্দুল আজিজ অনিক, পৌর ছাত্রলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক জাকির হোসেন জয়, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এবাদত হোসেনসহ এলাকার সকল স্তরের ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত ছিলেন।
মতবিনিময় ও আলোচনা সভা শেষে শাহাদাৎ হোসেন শোভনের সফলতা কামনায় মোনাজাত করেন, সরকার পাড়া দারুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম আবু বক্কর আল কাসেমী।
উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহাদাৎ হোসেন শোভন এর আগে সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের দুইবারের সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। তার গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার রামরাইল ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামে হলেও শহরের সরকার পাড়ায় ছোট থেকে বড় হয়েছে।