তরুণ-তরুণীদের বইমুখী করতে ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ‘চা কুঞ্জ’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 16 February 2022, 377 বার পড়া হয়েছে,
আদিত্ব্য কামাল: ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের প্রাণকেন্দ্র ব্যস্ততম এলাকা বঙ্গবন্ধু স্কয়ারে  ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়ে দিলেন চায়ের দোকান ‘চা কুঞ্জ’। চা পান করলেই বিনামূল্যে পড়তে পাড়বেন বই। পাঁচজনই ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের অনার্স চতুর্থ বর্ষের ছাত্র। পড়াশোনার পাশাপাশি কিছু একটা করার ইচ্ছা তাদের এই পথচলা। বিকেল ৪টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত তাদের ‘চা কুঞ্জ’। ব্যবস্তা রয়েছে প্রায় ১০ প্রকারের সুস্বাদু চা। মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা থেকে ১৫ টাকার ভেতরে। শিক্ষার্থীর এমন উদ্যোগ দেখে চা পিপাসুরাসহ সাধারণ মানুষের মাঝে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাঁশ আর শুকনো খড় দিয়ে তৈরি করা একটি ছোট্ট ঘর। সেই ঘরের দুই পাশে রাখা বইয়ের স্তূপ। ভেতরে মাটির কাপে পরিবেশন করা হচ্ছে চা। চা বানানো থেকে শুরু করে পরিবেশন সবই করছেন নিজেরা। চা পান করতে আসা কয়েকজন জানান, শিক্ষার্থীদের এমন উদ্যোগ অবশ্যই প্রশংসনীয়। তাছাড়া দোকানটিও ব্যতিক্রম। এখনে চায়ের পাশাপাশি বই পড়ার সুবিধা রয়েছে।
ব্যতিক্রমী এই উদ্যোগে সব ধরনের সহায়তার কথা জানিয়েছেন জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের কর্মকর্তারা। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের সহকারী পরিচালক সাইফুল ইসলাম বলেন, আপনি যদি এমনিতেই কাউকে বই পড়তে বলেন, তাহলে কিন্তু সে পড়বে না। বই পড়ার জন্য ভাল বই থাকার পাশাপাশি একটা নান্দনিক-আকর্ষণীয় পরিবেশ প্রয়োজন হয়, তাহলেই পাঠকরা বই পড়তে আগ্রহী হবেন।

অল্প সময়ের মধ্যেই বেশ সাড়া ফেলেছে এ ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। বই পড়া আর চা পানের পাশাপাশি দোকানটি একনজর দেখতেও ভিড় জমাচ্ছেন অনেকেই।