দেশে বিজ্ঞাপনসহ বিদেশি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ

সারাদেশ, 2 October 2021, 375 বার পড়া হয়েছে,

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিজ্ঞাপনসহ অনুষ্ঠান প্রচার করা বিদেশি সব চ্যানেলের সম্প্রচার বাংলাদেশে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

সরকারের নির্দেশনায় শুক্রবার (১ অক্টোবর) থেকে এসব চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ক্যাবল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব)।

কোয়াব প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এস এম আনোয়ার পারভেজ বলেন, ক্লিন ফিড (বিজ্ঞাপনমুক্ত) নিয়ে সম্প্রচারের নির্দেশনা অনুযায়ী বিদেশি চ্যানেলের প্রচার বন্ধ রয়েছে। এতে করে বিবিসি, সিএনএনসহ দেশি বিজ্ঞাপন নিয়ে প্রচার করা ভারতীয় সব চ্যানেলের সম্প্রচারও বাংলাদেশে বন্ধ হয়ে গেছে।

ক্যাবল অপারেটরদের দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী ২০২১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বরের পর বিজ্ঞাপনযুক্ত কোনো বিদেশি চ্যানেলের সম্প্রচার করা যাবে না। সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক ক্যাবল অপারেটররা বিজ্ঞাপন থাকা বিদেশি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ রেখেছে। এর ফলে সৃষ্ট অসুবিধার জন্য ক্যাবল অপারেটররা দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

কোয়াব সভাপতি আনোয়ার পারভেজ বলেন, বিজ্ঞাপনসহ অনুষ্ঠান প্রচার করে এমন বিদেশি চ্যানেলগুলো থেকে বিজ্ঞাপন কেটে বাদ দিয়ে সম্প্রচার করার সক্ষমতা অপারেটরদের নেই। এ কারণে তারা চ্যানেলগুলো দেখানোই বাদ দিয়ে দিয়েছেন।

তিনি বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী বিজ্ঞাপনসহ অনুষ্ঠান প্রচার করে এমন বিদেশি চ্যানেল বাংলাদেশে দেখানো যাবে না। তাই তা তারা দেখানো বন্ধ রেখেছেন।

সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে অনেক স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন আনোয়ার পারভেজ। তিনি বলেন, ক্যাবল অপারেটরদের মাধ্যমে বিদেশি চ্যানেলের প্রচার না হলে এই খাত মুখ থুবড়ে পড়বে। কারণ এই খাতে সাড়ে ৫ লাখ জনবল জড়িত।

তিনি আরও বলেন, ইন্টারনেটসহ ওটিটি প্ল্যাটফর্মে বিদেশি চ্যানেল চলবে আর আমাদের বন্ধ করতে বলবে, তা হয় না।

আইন অনুযায়ী দেশে বিদেশি চ্যানেলগুলোর বিজ্ঞাপনমুক্ত (ক্লিন ফিড) সম্প্রচার বাস্তবায়নে ১ অক্টোবর থেকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, কোনো বিদেশি চ্যানেলে ক্লিন ফিড দেখানো না হলে এবং মন্ত্রণালয়, টেলিভিশন ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন ও ক্যাবল অপারেটর ত্রিপক্ষীয় বৈঠকের মাধ্যমে ক্যাবল লাইনে সম্প্রচারের জন্য টেলিভিশনগুলোর নির্ধারিত ক্রমের ব্যত্যয় হলে বা কোনো ক্যাবল অপারেটর আইন ভঙ্গ করে নিজেরা বিজ্ঞাপন, অনুষ্ঠান প্রদর্শন করলে বা আইনের অন্য কোনো ব্যত্যয় ঘটালে সংশ্লিষ্ট চ্যানেল ডাউনলিংকের অনুমতিপ্রাপ্ত ডিস্ট্রিবিউটরদের এবং ক্যাবল অপারেটরদের ওপরই আইন ভঙ্গের দায় বর্তাবে এবং আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, ভারত, শ্রীলংকা, পাকিস্তান, নেপালসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশে ক্লিনফিড ছাড়া বিদেশি চ্যানেল কেউ দেখাতে পারে না। আর আমাদের দেশে বিদেশি চ্যানেলগুলো ক্লিনফিড পাঠাচ্ছে না, এই অজুহাতে এখানে ক্লিনফিড চালাবে না এটা হয় না।

দেশি শিল্প এবং শিল্পীদের সুরক্ষার জন্য বিদেশি শিল্পী দিয়ে বিজ্ঞাপন বানালে শিল্পী প্রতি দুই লাখ টাকা এবং কোনো টেলিভিশন চ্যানেল যদি সেই বিজ্ঞাপন প্রচার করে সে ক্ষেত্রে ২০ হাজার টাকা জরিমানার পরিপত্র জারি হয়েছে।