আখাউড়ায় গরু চুরির পর মাংস নিয়ে ধরা খেল উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাতিজা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 14 June 2022, 129 বার পড়া হয়েছে,

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলায় কোরবানির গরু চুরি করে মাংস বিক্রিকালে কায়কোবাদ ভূইয়া (৩৫) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। কায়কোবাদ ভূইয়া বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম ভূইয়ার আপন ভাতিজা ও উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের ছোট কুড়িপাইকা গ্রামের আব্দুল আজিজ ভূইয়ার ছেলে। সোমবার (১৩ জুন) ভোরে পৌর এলাকার বড়বাজার এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে তিনটি বস্তায় ১০৫ কেজি মাংস উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ছোটকুড়িপাইকা গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল হাকিম মাস্টার কোরবানি দেওয়ার জন্য একটি লাখ টাকা দামের ষাঁড় গরু লালনপালন করছিলেন। পাশের বাড়ির বাসিন্দা কায়কোবাদ ভূঁইয়া গভীররাতে গোয়ালঘর থেকে গরুটি চুরি করে।

পরে রাতেই গরুটি জবাই করে ভোরে আখাউড়া পৌরশহরের বড় বাজারের মাংসের দোকানী এরশাদ মিয়ার কাছে বিক্রি করতে নিয়ে যাচ্ছিলেন কায়কোবাদ ও তার সঙ্গীয় চোরেরা। এ সময় সড়কে টহলরত পুলিশ দেখে অন্যান্যরা পালিয়ে গেলেও কায়কোবাদকে আটক করা হয়। আটক কায়কোবাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে- গরুটি চুরি করে জবাই করে মাংস আনার কথা স্বীকার করেন।

আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, এ ঘটনায় গরুর মালিক মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলায় দুপুরে কায়কোবাদকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।