রাজকুমার ও তোতা পাখির গল্প গ্রন্থের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, সাহিত্য, 2 March 2022, 378 বার পড়া হয়েছে,
নিজস্ব প্রতিবেদক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তরুণ কবি ও সংগঠক মনিরুল ইসলাম শ্রাবণ রচিত, সদ্য প্রকাশিত শিশুতোষ শিক্ষামূলক গল্পগ্রন্থ ‘রাজকুমার ও তোতা পাখির গল্প’ বইয়ের পাঠ উম্মোচন ও গ্রন্থ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কবি ও কবিতা বিষয়ক সংগঠন কবির কলমের আয়োজনে বুধবার (২ মার্চ) বিকেলে জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের হল রুমে উক্ত গ্রন্থালোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের লাইব্রেরিয়ান সাইফুল ইসলাম লিমন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মুখ্যআলোচক ছিলেন চেতনায় স্বদেশ গণগ্রন্থাগার এর সভাপতি, কবি ও কথাসাহিত্যিক আমির হোসেন।
কবি ও সংগঠক ফাহিম মুনতাসিরের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, গোর্কণঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, রম্য লেখক ও নাট্যকার পরিমল ভৌমিক, সাহিত্য একাডেমির পরিচালক নন্দিতা গুহ, জেলা নাগরিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা রতন কান্তি দত্ত, সরাইল সাহিত্য ভূবন গণগ্রন্থাগারের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কবি আবুল কাশেম তালুকদার, উলচাপাড়া মালেকা সাহেব আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কবি সেলিম হোসাইন হাওলাদার, আশুগঞ্জ ফিরোজ মিয়া সরকারি কলেজের ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক কবি এম এ হানিফ, কবি ও কথাসাহিত্যিক এড. মানিক রতন শর্মা, সাহিত্য একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মোঃ নুরুল আমিন, পরিচালক জামিনুর রহমান, কবি শিরিন আক্তার, নদী নিরাপত্তার সামাজিক সংগঠন নোঙরের জেলা কমিটির সভাপতি শামীম আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক খালেদা মুন্নি, উদীচী জেলা শাখার সহ-সভাপতি, ফারুক আহমেদ ভূঁইয়া, কবি ও গল্পকার সাদমান শাহিদ, কবি ও লেখক হেলাল উদ্দিন হৃদয়, কবি ও গল্পকার শৌমিক সাত্তার, কবি গোলাম মো. মোস্তফা,
পথিক টিভির ব্যবস্থাপনার পরিচালক কবি লিটন হোসেন জিহাদ, প্রর্বতক আবৃত্তি সংসদের সাধারণ সম্পাদক নির্জয় হাসান সোহেল, সাবেরা সোবহান সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি শিক্ষক, কবি ও গীতিকার মোঃ আব্দুর রহিম, সাংবাদিক আদিত্ব্য কামাল, প্রাউড অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কর্ণধার কোহিনূর আক্তার, কবির কলমের সাবেক সভাপতি কবি সুমন সাহা, সিনিয়র সহ-সভাপতি কবি হুমায়ুন কবির, যুগ্ম সম্পাদক কবি শরিফ সরকার, সদস্য কবি মেহেদি হাসান, সোনালী সকাল সংগঠনের সদস্য আশিকুর রহমান, সুহেরা আক্তার জীমা, কবি মনির হোসেন প্রমুখ। পাঠ উম্মোচন করেন ক্ষুদে শিক্ষর্থী উক্তি সাহা, পৃথ্বীরাজ, তাসফিয়া নূর ঝিলমিল।
সভায় বক্তগণ বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে অনেক কবি, সাহিত্যিক এবং শিশু সংগঠন থাকলেও শিশু সাহিত্য নিয়ে তুলনামূলক কম কাজ হয়। বর্তমান সময়ে ছেলেমেয়েদের মোবাইল ফোন আসক্তি কমিয়ে তাদের বই মুখি করার জন্য এ ধরনের কাজ আরো বেশি বেশি করা দরকার। পাশাপাশি সব বয়সী পাঠকসৃষ্টির জন্যও কাজ করার উপর গুরুত্তারোপ করেন। সভায় বক্তগণ আরো বলেন, বহু জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তির জন্মস্থান ব্রাহ্মণবাড়িয়া। অনেক গুনী লেখক নিয়মিতভাবে লেখালেখি করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সুনাম বৃদ্ধি করে চলছেন। এই জেলার নবীন লেখক মনিরুল ইসলাম শ্রাবণ নিজেকে আরও সমৃদ্ধ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সুনাম বজায় রাখতে কাজ করে যাবে। তারা বলেন গ্রন্থটির বহুল প্রচার কামনা করেন।
সভায় অনুভূতি প্রকাশ করে মনিরুল ইসলাম শ্রাবণ বলেন, এক সময় আমাদের দেশের শিশু-কিশোররা প্রকৃতির রূপ-সুধা পুরোটাই উপভোগ করে বড় হয়েছে। কিন্তু বর্তমানে তারা একরকম গৃহবন্দী। স্মার্টফোনের মাত্রাতিরিক্ত আসক্তির ফলে হারিয়ে যেতে বসেছে তাদের সোনালি শৈশব। শিশুদেরকে এই অবস্থা থেকে ফেরাতে পারে কেবল মাত্র বই। এরই ধারাবাহিকতায় ‘রাজকুমার ও তোতা পাখির গল্প’ এই বইটি প্রকাশ করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, নিয়মিত ছড়া, কবিতা লিখলেও এবারই প্রথম শিশুতোষ গল্প লিখি। বেশকিছু দিন শিশু সংগঠক হিসেবে কাজ করার পেরণা থেকেই এই শিশুতোষ গল্প লেখা। বিষয়ের সহজবোধ্যতা, রূপকথা ও বাস্তবতার মিশ্রণ এবং সাবলীল ভাষার কারণে শিশু-কিশোররা বইটি পড়তে আগ্রহী হবে। আশা করি বইটি পড়ে শিশুরা উপকৃত হবে। তিনি সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
‘রাজকুমার ও তোতা পাখির গল্প’ বইটি প্রকাশ করেছে জ্ঞানজ্যোতি প্রকাশনী, ঢাকা। পরিবেশক ছিন্নপত্র প্রকাশন, ঢাকা। বইটি পাওয়া যাবে বাংলা একাডেমি আয়োজিত অমর একুশে বই মেলার ছিন্নপত্র প্রকাশনীর ০৪নং স্টলে ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন লাইব্রেরীতে।