নাসিরনগরে ইন্টারনেট সংযোগ পাইপের স্তূপে অগ্নিসংযোগের অভিযোগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 14 March 2022, 147 বার পড়া হয়েছে,

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ইনফো-সরকার প্রকল্প-৩ এর আওতায় লাইন নির্মাণের জন্য ব্যবহৃত পাইপে দুর্বৃত্তরা আগুন দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

দুর্বৃত্তদের আগুনে সরকারি এ প্রকল্পের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানান প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা। তবে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট লাইন ট্র্যাকারম্যান মো. জাহাঙ্গীরের দাবি, আগুনের ঘটনাটি পরিকল্পিত। ঘটনাটি নাসিরনগর উপজেলার কুন্ডা ইউনিয়নের।

শনিবার বিকাল সোয়া পাঁচটার দিকে এ আগুন দেওয়ার ঘটনাটি ঘটে। আগুনের ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেন নাসিরনগর ফায়ার সার্ভিসের দলনেতা রেজা হোসেন।

ইনফো-সরকার প্রকল্প-৩ সূত্রে জানা গেছে, এই প্রকল্পটির আওতায় সারা দেশে ২ হাজার ৬০০টি ইউনিয়নে দ্রুতগতির ইন্টারনেট দিতে সরকার একটি প্রকল্প হাতে নেয়। এরই ধারাবাহিকতায় নাসিরনগরের ১৩টি ইউনিয়নের মধ্যে চারটি ইউনিয়নের ৪৫ কিলোমিটার ইন্টারনেট লাইন সংযোগ নির্মাণের কাজ চলমান।

এর মধ্যে কুন্ডা ইউনিয়ন থেকে গোকর্ণ ইউনিয়নের জন্য লাইন নির্মাণ করতে প্রায় দুই কোটি টাকা মূল্যের সংযোগ পাইপ কুন্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে স্তূপ করে রাখা হয়। প্রায় এক মাস ধরে ওই মাঠে পাইপ রাখা হচ্ছিল। সেখান থেকে পাইপ নিয়ে দুই ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে লাইন নির্মাণ কাজ করা হচ্ছিল।

এরই মধ্যে শনিবার বিকাল সোয়া পাঁচটার দিকে মাঠের মধ্যে স্তূপ করে রাখা পাইপে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। হঠাৎ আগুনের লেলিহান দেখে ফায়ার সার্ভিসের টিমকে ফোন করে স্থানীয়রা। পরে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৩০ মিনিট চেষ্টা করে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়।

ফায়ার সার্ভিসের দলনেতা রেজা হোসেন বলেন, আমরা স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছি। সেখানে গিয়ে দেখতে পাই এলাকাবাসী আগুন নেভানোর চেষ্টা করছে। পরে আমাদের টিম যোগ দিয়ে ৩০ মিনিটের চেষ্টায় আগুন নেভাতে সক্ষম হই।

ইনফো-সরকার প্রকল্প-৩ এর নাসিরনগরের দায়িত্বে থাকা ট্র্যাকারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আগুনের বিষয়টি পরিকল্পিত। যদি পাইপের এক সাইডে আগুন লাগত তাহলে বিষয়টি দুর্ঘটনা বলে ধরে নেওয়া যেত। যেহেতু পাইপের মাঝ অংশে আগুন দেওয়া হয়েছে তাই আমাদের ধারণা বিষয়টি পরিকল্পিত।

নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মেহেদি হাসান খান শাউন বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।