আখাউড়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ, ভিডিও স্বামীকে প্রেরণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 23 June 2022, 153 বার পড়া হয়েছে,

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

গৃহবধূর সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ও ভিডিও পাঠানো হয়েছে তার স্বামী ও ভাইকে।

এমন অভিযোগে মশিউর রহমান শান্ত (৩৫) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাতে ভুক্তভোগী গৃহবধূ (২৮) বাদী হয়ে আখাউড়া থানায় মামলা করেন। গ্রেফতার মশিউর রহমান শান্ত পৌরশহরে মসজিদপাড়ার বাসিন্দা আবদুল করিমের ছেলে।

মামলাসূত্রে জানা গেছে, গত বছর প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলার মধ্য দিয়ে পরিচয় হয় মশিউর রহমান শান্তর। পরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

স্বামী বিদেশে থাকায় মশিউর রহমান শান্ত ওই নারীকে নিয়ে মাঝে মধ্যে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে গিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করত। এ সুযোগে শান্ত ওই নারীর আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে।

তা ছাড়া বিভিন্ন সময় ইমোতে দুজনে একান্ত মুহূর্তে কথোপকথনের সময় অনেক ছবি স্ক্রিনশট দিয়ে সংরক্ষণ করে। পরে ব্ল্যাকমেইল করে দিনের পর দিন প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে মেলামেশা করে আসছে শান্ত।

সম্প্রতি মশিউর রহমান শান্তর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন ওই নারী। গত ১৪ জুন ওই নারীর পিত্রালয়ে দেখা করে শান্ত। এ সময় তার মোবাইলে ধারণকৃত আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও দেখিয়ে আবার মেলামেশার প্রস্তাব দেয়। এতে তিনি রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে আপত্তিকর ছবি-ভিডিও তার স্বামী ও ভাইয়ের ইমোতে পাঠায় মশিউর রহমান শান্ত।

পরে স্বামী-স্ত্রী ও পরিবারের মধ্যে সমস্যা দেখা দেয়। ঘটনা জানাজানি হলে মশিউর রহমান শান্ত ওই নারীর পরিবারকে ভয়ভীতি দেখায় এবং থানা পুলিশকে জানালে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। পরে ওই নারী মঙ্গলবার রাতে থানায় উপস্থিত হয়ে অভিযোগ দিলে মশিউর রহমান শান্তকে রাতেই অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আখাউড়া থানার ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় কুমার সরকার জানান, এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই নারী মামলা করেছেন। গ্রেফতার শান্তকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।