কসবায় দই নিয়ে কথা কাটাকাটি, মারধরে কনের বাবার মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 7 October 2021, 390 বার পড়া হয়েছে,
জাকারিয়া জাকির : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় বিয়ে বাড়িতে বরযাত্রীদের দই খাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারধরে কনের বাবা ইকবাল হোসেন (৫০) মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তিনি উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের গণকমুড়া গ্রামের মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকালে কনের মা জোৎসনা বেগম বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে ইকবাল হোসেনের মেয়ের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী বিষ্ণাউড়ি গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে পারভেজ মিয়ার বিয়ের দিন ধার্য ছিল। বরযাত্রী আসার পর তাদেরকে খাবার দেওয়া হলে দুইজন বরযাত্রী দই টক হয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেন। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে বয়োজ্যেষ্ঠরা বিষয়টি মীমাংসা করে দেন। এরপর বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।
নিহতের  স্বজনদের অভিযোগ, বুধবার বরপক্ষ আমাদের বাড়িতে আসলে খাবারের সময় দই দেওয়া হলে তারা দই টক হয়েছে বলেন। পরে আমরা বলেছি প্রয়োজনের আমরা দই আবারো আপনাদের দিব। এরপর তাদের ঠান্ডা এনে দেওয়া হয়। বিষয়টি সমাধান হয়ে পরদিন (৬ অক্টোবর) বুধবার রাতে বাজারে চা খেতে গেলে কনের বাবা ইকবাল হোসেনকে বরপক্ষের কয়েকজন যুবক দই টক হওয়া নিয়ে আবারও কটু কথা বলেন। এ নিয়ে একপর্যায়ে ওই যুবকরা ইকবাল হোসেনকে মারধর করেন। এতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।
কসবা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর ভূইয়া জানান, বিয়ের বিয়েতে দই নিয়ে কথা কথাকাটি হয়েছে এটা সত্য। তাকে বাজারে আটকিয়েছে  এটাও সঠিক। কিন্তু মারধরের বিষয়টি কতটুকু হয়েছে এটি তদন্ত চলছে। মরদেহ জেলা সদরের মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। কনের মা জোৎসনা বেগম বাদী হয়ে ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। আমরা উর্ধ্বতন স্যারদের সাথে কথা আইনগত ব্যবস্হা গ্রহণ করব।