বাংলা ভাষার মর্যাদা কমিয়ে ইংরেজিকে ব্যবহার করব না: আখাউড়ায় আইনমন্ত্রী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 22 February 2022, 157 বার পড়া হয়েছে,

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বাংলা ভাষা অত্যন্ত সমৃদ্ধশালী ভাষা। আমরা আমাদের ভাষার মর্যাদা কমিয়ে ইংরেজিকে ব্যবহার করব না।

তিনি বলেন, আমি এমন কথা বলি না যে, ইংরেজি ব্যবহার করব না, কারণ সারা বিশ্বে চলতে গেলে আমাদেরকে ইংরেজি ব্যবহার করতে হবে, কিন্তু বাংলা ভাষার মর্যাদা কমিয়ে ইংরেজিকে ব্যবহার করবো না। শহিদ দিবসে এটাই হোক আমাদের প্রত্যয়।

২১ ফেব্রুয়ারি শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক ভাষা দিবস উপলক্ষে সোমবার সকালে আখাউড়া উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এসব কথা বলেন।

এ সময় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আরও বলেন, ১৯৪৮ সালে সোনার বাংলার স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলা আমাদের রাষ্ট্র ভাষা হবে এই দাবি জানিয়েছিলেন। ১৯৫২ সালে তিনি যখন কারাগারে ছিলেন, তখন বাংলা ভাষা রাষ্ট্রভাষার আন্দোলনে শরিক হয়ে তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের পুলিশের গুলিতে সালাম, বরকত, জব্বারসহ আরও অনেকে নিহত হন।

তিনি বলেন, ভাষার জন্য কোনো জাতি রক্ত দিয়েছে এ রকম নাই। যারা ভাষার জন্য, যারা  স্বাধীনতার জন্য জীবন দিয়েছেন ভাষা শহিদ এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা; ৩০ লাখ মা বোন যারা স্বাধীনতার জন্য জীবন দিয়েছেন তাদের প্রতি শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা জানাই। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিও কৃতজ্ঞতা এবং শ্রদ্ধা জানাই।

আনিসুল হক  বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা  ২১ ফেব্রুয়ারিকে সারা বিশ্বে মাতৃভাষা দিবস হিসেবে সম্মান করার এবং স্বীকৃতি দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে। এখন একুশে ফেব্রুয়ারি মাতৃভাষা হিসেবে সারা বিশ্বে স্বীকৃতি পেয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুমানা আক্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে
আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ ইউনিয়নের টনকি গ্রামের ভাষা সৈনিক মিয়া মো. মতিন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক সাবেক অধ্যক্ষ মো. জয়নাল আবেদীন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. সাইফুল ইসলাম, আখাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন সফিক আলেয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ জামসেদ শাহ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার স্বামী ব্যাংক কর্মকর্তা মো. শাহনুল ইসলাম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শওকত আকবর প্রমুখ।

এদিকে বিজয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে যুগান্তর ও যমুনা টেলিভিশনের আখাউড়া প্রতিনিধি এবং আখাউড়া উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মহিউদ্দিন মিশুসহ ৫ জন সাংবাদিককে সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে উপজেলার সব প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে বিতরণের জন্য আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের দেওয়া উপহার ৩৫ হাজার মাস্ক বিদ্যালয় প্রধানদের হাতে হস্তান্তর করা হয়।