নবীনগরে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টায় মামলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, 11 October 2021, 400 বার পড়া হয়েছে,

জনতার খবর : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার বিদ্যাকুট ইউনিয়নে রাতের আঁধারে স্বামীর হাত পা বেঁধে স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী গৃহবধূ বাদী হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আদালতে মামলা দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার রাত ১১টায় ভিকটিম তার স্বামীসহ শয়নকক্ষে ঘুমিয়ে ছিলেন। ঘুমন্ত অবস্থায় মৃত মালেক মিয়ার ছেলে শুক্কুর মিয়া (২৮), আলেক মিয়ার ছেলে ইয়াসিন (২৬), মৃত মন্তাজ মিয়ার ছেলে বাছির (৪০), মৃত রেজেক মিয়ার ছেলে হাছান মিয়া (৩৮), ফুল মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়া (২৬) কৌশলে ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন।

এতে ভিকটিমের স্বামী বাঁধা দিতে গেলে তারা তার হাত পা বেঁধে শরীরের বিভিন্ন অংশে বিষাক্ত স্প্রে মেরে এলোপাথাড়ি মারধর করে  ভিকটিমসহ তার মাথার চুল কেটে দেয়। এতে ভিকটিম ও তার স্বামী অসুস্থ হয়ে পড়লে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে চিকিৎসা করান।

এ বিষয়ে ভিকটিম সোমবার নিজে বাদী হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর আদালতে মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিষয়ে বাদী বলেন, আমি এতিম মানুষ তারা আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করার চেষ্টা করেছে, এমনকি মারধর করে আমাদের মাথার চুল কেটে আমার গলায় থাকা ৩০ হাজার টাকার স্বর্ণের চেইন নিয়ে গেছে। আমরা এখন তাদের ভয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছি। তাই থানার পরামর্শ অনুযায়ী ব্রাহ্মণবাড়িয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এ আদালতে মামলা দায়ের করেছি।

ভিকটিমের স্বামী বলেন, আমার হাত পা বেঁধে চোখের সামনে আমার স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে। এখন আমি এর বিচারে জন্য আইনের শরণাপন্ন হয়েছি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া আদালতে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করতে বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন দুলাল বলেন, ওই নারী বাদী হয়ে আমাকে তারপক্ষের আইনজীবী নিয়োগ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এ ধর্ষণচেষ্টার মামলা দায়ের করেছেন। আদালত বিষয়টি শুনে আমলে নিয়ে জুডিশিয়াল তদন্তের আদেশ প্রদান করেন।