আলোচিত হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

সারাদেশ, 29 July 2021, 462 বার পড়া হয়েছে,
নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামীলীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটি থেকে সদ্য অব্যাহতি পাওয়া হেলেনা জাহাঙ্গীরের গুলশানের বাসায় অভিযান চালাচ্ছে র‍্যাব। আজ বৃহস্পতিবার রাতে র‍্যাব সদর দপ্তরের একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

র‍্যাবের সূত্রটি বলেন, অনলাইনে নানা ধরনের অপপ্রচারের কারণে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। কিন্তু তাঁকে খুঁজে পাওয়া না যাওয়ায় তাঁর গুলশান ২ এ হোটেল ওয়েস্টিনের পেছনে ৩৬ নম্বর সড়কের পাঁচ নম্বর বাসায় এই অভিযান চালানো হচ্ছে।

সূত্রটি আরও বলছে, অনলাইনে নানাজনকে নিয়ে হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য পাওয়া যাচ্ছে। এ ছাড়া জয়যাত্রা নামের তাঁর একটি অনলাইন টেলিভিশন রয়েছে। সেখানেও নানা ধরনের অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে টেলিভিশনটির পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে। মূলত সবকিছু মিলিয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

গত রোববার আওয়ামীলীগের মহিলাবিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্যপদ থেকে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি দিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

আওয়ামীলীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক ও মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য সচিব মেহের আফরোজ চুমকি স্বাক্ষরিত এই সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, হেলেনা জাহাঙ্গীর বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মহিলাবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ছিলেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারিত তার সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড সংগঠনের নীতিবহির্ভূত হওয়ায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মহিলাবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ হতে তাকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে।

জানা যায়, নানা বিষয়ে আলোচিত ও সমালোচিত ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীর সম্প্রতি ‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামের একটি সংগঠন করেন। এতে নিজেকে সভাপতি এবং মাহবুব মনিরকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেন। এই সংগঠনে জেলা-উপজেলা ও বিদেশ শাখায় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক মনোনয়ন দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্টার প্রকাশ করা হয়। এ ঘটনার পর ফেসবুকে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।সংগঠনটির দাবি, গত দুই-তিন বছর ধরেই আওয়ামীলীগের সহযোগী সংগঠন হিসেবে অনুমোদন পাওয়ার চেষ্টা করছিল তারা। যদিও আওয়ামীলীগ নেতারা বলেছেন, সংগঠনটির সঙ্গে আওয়ামীলীগের কোনো সম্পর্ক নেই।

বিভিন্ন সময় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সঙ্গে হেলেনার তোলা ছবি পোস্ট করে তাঁর উদ্দেশ্য নিয়েও ফেসবুকে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।

গত সোমবার হেলেনা জাহাঙ্গীর নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের ব্যাপারে ফেসবুক লাইভে এসে একপর্যায়ে কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘পুরুষরা এত খারাপ কেন? সব পুরুষ না, কিছু কিছু কাপুরুষ, এত খারাপ। মেয়েদের পিছনে লেগে থাকে, লজ্জা করে না আপনাদের মেয়েদের পিছনে লেগে থাকতে। মেয়েরা না মায়ের জাতি। মা না থাকলে আপনারা জন্ম হতেন না। সেই মেয়েদেরকে আপনারা অপমান করেন, লেলিয়ে দেন; হেলেনা জাহাঙ্গীরের পিছনে লাগো।

হেলেনা জাহাঙ্গীর বলেন, ‘আমি সরকারের জন্য একটা চ্যানেল চালাচ্ছি। সেটা জয়যাত্রা টেলিভিশন। সেই চ্যানেল আমি ভতুর্কি দিয়ে চালাচ্ছি প্রায় চার বছর যাবৎ। আমি চ্যানেলের বাইরে কোনো কাজ করতে পারি না, এত মনোযোগ দিতে হয় আমাকে।